চুল সোজা করার উপায়

You are currently viewing চুল সোজা করার উপায়
Image by StockSnap from Pixabay

প্রায়শই মহিলারা তাদের কোঁকড়ানো চুলের চেয়ে সোজা চুল পছন্দ করেন। এ জন্য তারা মসৃণ করার মতো ব্যয়বহুল চিকিৎসার আশ্রয় নেয়। তবে আপনাদের বলে রাখি আমাদের চারপাশে এমন কিছু জিনিস আছে, যেগুলো ব্যবহার করে চুল সোজা করা যায়। আজকের নিবন্ধটি এই বিষয়ে। আজ এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা আপনাদের বলবো কোন কোন জিনিস ব্যবহার করে চুল সোজা করা যায়।

চুল সোজা করার উপায়

অলিভ অয়েল ব্যবহার করে চুল সোজা করা যায়। এক্ষেত্রে অলিভ অয়েল দিয়ে চুলের গোড়ায় ম্যাসাজ করুন। এর পর হালকা শ্যাম্পু দিয়ে ঠান্ডা ও পরিষ্কার পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এটা করা সোজা হতে পারে।
ডিম ব্যবহার করেও চুল সোজা করা যায়। এমন পরিস্থিতিতে বলুন যে আপনি ডিম লাগিয়ে চুল আঁচড়ান। প্রায় 1 ঘন্টা পর স্বাভাবিক পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে করে চুল লম্বা ও ঘন দেখাবে।
ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার করেও চুল সোজা করা যায়। এমন অবস্থায় একটি স্প্রে বোতলে ক্যাস্টর অয়েল এবং জল মিশিয়ে চুলে মিশ্রণটি স্প্রে করুন। এতে চুল সোজা দেখাবে।
অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করেও চুল সোজা করা যায়। এক্ষেত্রে আপনি শিকড়ে অ্যালোভেরা জেল লাগান। এবং প্রস্তুত মিশ্রণটি কিছুক্ষণ রেখে দিন। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে করে চুলের রুক্ষতার সমস্যা দূর হবে।

 একটি হেয়ার মাস্ক চেষ্টা করুন
আপনি একটি DIY হেয়ার মাস্ক দিয়ে আপনার চুলকে আরও চকচকে এবং সোজা চেহারা দিতে পারেন। চুলে প্রোটিন পুনরুদ্ধার করার জন্য হেয়ার মাস্কগুলি কোঁকড়া চুলকে আরও আরামদায়ক করে তুলতে পারে। একটি চুলের মাস্ক ব্যবহার করে দেখুন যা একটি গভীর-কন্ডিশনিং প্রভাবের জন্য কাঁচা ডিম, মানুকা মধু বা অ্যাভোকাডো ব্যবহার করে। কোঁকড়া চুলকে ইনফিউশন এবং মজবুত করার জন্য আপনি গরম নারকেল তেল বা বাদাম তেল গরম তেলের চিকিত্সা হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Reply