ভেজা চুলে ঘুমিয়ে পড়া | জেনে নিন অপকারিতা সম্পর্কে!

You are currently viewing ভেজা চুলে ঘুমিয়ে পড়া | জেনে নিন অপকারিতা সম্পর্কে!
Image by Olya Adamovich from Pixabay

লম্বা, কালো ও ঘন চুল সবাই চায় কিন্তু কিছু অভ্যাস চুলকে ঘিরে ফেলে নানা সমস্যা। এর মধ্যে একটি হল ভেজা চুলে ঘুমিয়ে পড়া।
ভেজা চুলে ঘুমানোর অভ্যাস অনেকেরই আছে। তবে তারা জানেন না যে ভেজা চুলে ঘুমালে চুলের ক্ষতি হতে পারে।

ধীরে ধীরে টাকের শিকার হবেন
ভেজা চুলে ঘুমালে মাথার ত্বকে ছত্রাক এবং ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়, যার কারণে চুল ভেঙে যেতে শুরু করে এবং ধীরে ধীরে ব্যক্তি টাকের শিকার হয়। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভেজা চুলে ঘুমানোর অভ্যাস ত্যাগ করার চেষ্টা করুন।
এ ছাড়া নিয়মিত চিরুনি ধুতে থাকুন, তা না হলে মাথার ত্বকেও সংক্রমণ হতে পারে।

খুশকির সমস্যা দ্রুত বাড়বে
ভেজা চুলে ঘুমালে খুশকির মতো সমস্যা দ্রুত বাড়ে। আসলে, ভেজা চুলে ঘুমালে মাথার ত্বকের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা শেষ হয়ে যায়, যার কারণে মাথার ত্বক শুষ্ক হয়ে যায় এবং খুশকির সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।
এর পাশাপাশি খুশকির কারণেও মাথার ত্বকে চুলকানি শুরু হয়, যা থেকে মুক্তি পাওয়া কিছুটা কঠিন হয়ে পড়ে। তাই ভেজা চুলে ঘুমানো এড়িয়ে চলুন।

বিভক্ত শেষ হওয়ার ঝুঁকি
চুল ভেঙে যাওয়ার সমস্যাও খুব সাধারণ হয়ে উঠেছে। স্প্লিট এন্ডের কারণে চুলের বৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া বিভক্ত চুল থাকা চুলের সৌন্দর্যও নষ্ট করে।
ভেজা চুলে ঘুমালে স্প্লিট এন্ডের ঝুঁকি বেড়ে যায় এবং আপনি যদি ভেজা চুলে ঘুমান তাহলে এই সমস্যা থেকে কেউ আপনাকে বাঁচাতে পারবে না।
তাই বিভক্ত চুল থেকে মুক্তি পেতে হলে ভেজা চুলে ঘুমানো বন্ধ করতে হবে।

ঠাণ্ডা লাগার মতো সমস্যায় শরীর ঘেরা হতে পারে
Image by Thorsten Frenzel from Pixabay

ঠাণ্ডা লাগার মতো সমস্যায় শরীর ঘেরা হতে পারে
ভেজা চুলে ঘুমালে আপনার ঠান্ডা লাগার ঝুঁকি থাকে, বিশেষ করে আপনি যদি এসি রুমে ঘুমান বা ঠান্ডা আবহাওয়ায় ঘুমান।
তাই রাতে চুল ধুলে প্রথমে ড্রায়ার দিয়ে ভালো করে শুকিয়ে নিন তারপর ঘুমাতে যান। এতে আপনার স্বাস্থ্য খারাপ হবে না।
অন্যদিকে, আপনার চুল স্বাভাবিকভাবে শুকাতে সাহায্য করার জন্য রাতের পরিবর্তে দিনে আপনার চুল ধোয়ার চেষ্টা করুন।

ভেজা চুল নিয়ে ঘুমানোর সময় মাথায় রাখুন চুলের যত্নের এই টিপস

ভেজা চুলে হেয়ার সিরাম লাগান
ভেজা চুল নিয়ে ঘুমানোর সময়, ঘুমাতে যাওয়ার আগে অবশ্যই হেয়ার সিরাম লাগাতে হবে। এতে চুলে জট পড়ে না এবং পরের দিন চিরুনিও সহজে হয়ে যায়। তাই চেষ্টা করুন ভেজা চুলে অবশ্যই সিরাম লাগান।

আপনার চুলের ধরন জানা জরুরী
আপনি যদি ঘুমাতে যান এবং আপনার চুল ভিজে যায় তাহলে আপনি ঘুমাতে যেতে পারেন। আপনাকে যা জানতে হবে তা হল আপনার চুলের ধরন, কারণ এভাবেই আপনাকে ঘুমাতে হবে। কোঁকড়ানো চুলে ঘুমানো আরও কঠিন। কোঁকড়ানো চুল থাকলে টপ বেঁধে ঘুমানো উচিত। এতে করে পরের দিন চুল খুললে আগের মতো বাউন্সি চুল পাবেন। ঘুমানোর জন্য নরম বালিশ ব্যবহার করা উচিত। এছাড়াও, মনে রাখবেন সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর চুল আঁচড়াবেন না।

ঘুমানোর জন্য মসৃণ ও নরম বালিশ বেছে নিন
আপনি যদি ভেজা চুল নিয়ে ঘুমান এবং আপনি আপনার চুল নষ্ট করতে না চান তবে ঘুমের জন্য রেশম বালিশ ব্যবহার করার চেষ্টা করুন যা মসৃণ এবং নরম হয়। সিল্কের বালিশের চুল সহজে আটকে বা ভেঙে যায় না। তাই ভেজা চুলে সিল্কের বালিশে ঘুমানোর বিষয়টি নিশ্চিত করুন।

ঘুমানোর সময় চুলের অবস্থানের যত্ন নিন
আপনার চুল ভেজা অবস্থায় ঘুমানোর সময় আপনার চুলের ক্ষতি হবে কিনা তা অনেকাংশে নির্ভর করে আপনার হেয়ারস্টাইলের উপর। চুল বেঁধে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। পরের দিন পেঁচানো চুল না চাইলে চুল বাঁধার পরিবর্তে একদিকে ঠেলে ঘুমাতে পারেন।

ঘুমানোর আগে চুল শুকিয়ে নিন

ঘুমানোর আগে চুল শুকিয়ে নিন
না, আমরা মানে এই নয় যে ড্রায়ার দিয়ে আপনার চুল সম্পূর্ণ শুকিয়ে নিতে হবে। এতে আপনার চুলের ক্ষতি হতে পারে। আপনাকে যা করতে হবে তা হল আপনার চুল হালকাভাবে শুকিয়ে নিন। কারণ মাথা ধোয়ার পরপরই বিছানায় গেলে বা গোসল করলে তা চুলের ফলিকলের ক্ষতি করতে পারে। যা চুল ভেঙ্গে দেয়। তাই গোসলের পর চুল শুকানোর জন্য কিছুটা সময় দেওয়ার চেষ্টা করুন, তবে হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে চুল শুকাবেন না।

Leave a Reply